• শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:০১ অপরাহ্ন
Headline
ইউনিক এডুকেয়ার হাইস্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া মোনাজাতের মাধ‌্যমে শেষ হলো দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা ক্ষমতার অপব্যবহার করে দীর্ঘ দিন যাবত একই কর্মস্থলে গাজীপুর সদরের শিক্ষা অফিসার শামীম আহম্মেদ গাজীপুর সাংবাদিক ঐক্য ফোরামের আহবায়ক কমিটি গঠন গাজীপুর কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের হাজী মুছা সভাপতি, ইসমাঈল মাস্টার সম্পাদক নির্বাচিত এই বিজয় জনগণের বিজয়: শেখ হাসিনা অবাধ-স্বচ্ছ ও উৎসবমুখর নির্বাচন হয়েছে, জানালেন বিদেশি পর্যবেক্ষকরা বিলুপ্তির পথে তাঁতশিল্প, হুমকির মুখে ব্যবসায়ীরা এই নির্বাচন দেশের গণতান্ত্রিক অভিযাত্রায় মাইলফলক হয়ে থাকবে: কাদের অনিয়ন্ত্রিত বেকারি পণ্য বাড়ছে স্বাস্থ্যঝুঁকি

‘যেনতেনভাবে বিদেশে আর কর্মী পাঠাবো না’

রিপোর্টারের নাম / ২২ টাইম:
আপডেট: সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক :
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. আহমেদ মুনিরচ্ছ সালেহীন বলেছেন, আমি মনে করি এখন সময় এসেছে স্পষ্টভাবে বলার যে, যেনতেনভাবে বিদেশে লোক পাঠাবো না। জেনে বুঝে বিদেশে কর্মী পাঠাবো।

সেই কর্মীর মর্যাদা, বেতন ও চাকরির নিরাপত্তা- এগুলো না থাকলে আমরা কোনোভাবে লোক পাঠাবো না। আজ সোমবার প্রবাসী কল্যাণ ভবনের বিজয় ’৭১ হলে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ড. আহমেদ মুনিরচ্ছ সালেহীন বলেন, ‘আমাদের মাথা পিছু রেমিট্যান্স খুবই কম।

প্রতি বছর আমাদের কর্মী যাওয়ার সংখ্যা বাড়ছে, কিন্তু সেই অনুপাতে আমাদের রেমিট্যান্স বাড়ছে না। মাথাপিছু রেমিট্যান্স কম হওয়ার অনেকগুলো কারণ আছে, তার মধ্যে একটা কারণ হচ্ছে- আমাদের দক্ষকর্মীর অভাব। আরেকটা কারণ হচ্ছে উপযুক্ত বেতন পাচ্ছে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘‘আমরা একটা মডেল স্থাপন করতে চাই। সেই মডেল হচ্ছে ‘নিয়োগকর্তার খরচ’ মডেল।

একজন কর্মীর অভিবাসন ব্যয় পুরোটা নিয়োগকর্তা দেবেন। বোয়েসেল কিছু দেশে কর্মী পাঠাচ্ছে সেখানে এরকম হচ্ছে। আগামীকাল (আজ) মালয়েশিয়ায় প্রায় ৭৫ জন কর্মী রিক্রুটিং এজেন্টের মাধ্যমে যাবেন। তাদেরকে একটি টাকাও খরচ করতে হচ্ছে না।

এ ক্ষেত্রে রিক্রুটিং এজেন্সির খরচ দেবেন নিয়োগকর্তা। এটি একটি মডেল। আমরা যদি এগুলোকে অনুপ্রাণিত করতে পারি, তাহলে বাংলাদেশের অভিবাসন ব্যয়ের যে দুর্নাম, আমরা অনেক কাজ করেছি, কিন্তু আমাদের ঘরের যে সমস্যা, সেটি দূর করতে পারিনি। এগুলো দূর করতে হলে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক সালেহ আহমদ মোজাফফর, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক মো. হামিদুর রহমান, বাংলাদেশ ওভারসিজ এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেডের (বোয়েসেল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মল্লিক আনোয়ার হোসেন, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মজিবর রহমান, আইওএম বাংলাদেশের মিশন প্রধান আবদুসাত্তর এসোয়েভ, বাংলাদেশে আইএলও’র কান্ট্রি ডিরেক্টর তুমো পুতিয়ানিন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো নিউজ
https://slotbet.online/